কারাগারে বন্দী অবস্থায় থাকা ‘অং সান সু চি’র ভাইরাল ছবিটি আসলে সম্পাদিত

Altered International

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্ট শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, মিয়ানমারের নোবেল জয়ী রাজনীতিবিদ ‘অং সান সু চি’-কে একটি ছোট কারাগারে বন্দী অবস্থায় রাখা হয়েছে। পোস্টে দেওয়া ছবিতে দেখা যাচ্ছে অং সান সু চি কয়েদীদের পোশাক পরে একটি ছোট কারাগারে বসে আছেন। পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “দেখেনতো চিনেন কি না? আমি কিন্তু চিনতে পারছি, তবে খুব কষ্ট হইছে চিনতে। ক্ষমতা এমন এক জিনিস আজ আছে তো কাল নেই। এটাই সবার জন্য বড় শিক্ষা।“

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভুয়া এবং ভিত্তিহীন। ২০১৩ সালের একটি ছবিকে সম্পাদিত করে ‘অং সান সু চি’-র মুখ বসিয়ে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে। 

Clai,m.png
ফেসবুকআর্কাইভ

উল্লেখ্য, অং সান সুচি হলেন মিয়ানমারের একজন রাজনীতিবিদ এবং লেখিকা যিনি মিয়ানমারের প্রথম ও বর্তমান রাষ্ট্রীয় উপদেষ্টা এবং ন্যাশনাল লীগ ফর ডেমোক্র্যাসির নেত্রী। গণতন্ত্র ও মানবতার পক্ষে সংগ্রামের জন্য তিনি নোবেল শান্তি পুরস্কার (১৯৯১) সহ আরো অনেক পুরস্কার ও সম্মাননা পেয়েছেন তিনি। রোহিঙ্গা সংকট তার ভূমিকা নিয়ে তীব্রভাবে সমালোচিত হন তিনি। এই একই কারণেই বাংলদেশের জনগণ তার ওপর রুষ্ট। 

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে ছবিটিকে গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলাফলে, বেশ কয়েকটি ওয়েবসাইটে এর অনুসন্ধান পাওয়া যায়। ‘ল এনফর্সমেন্ট টুডে’ নামে একটি ওয়েবসাইটের ২০১৮ সালের একটি প্রতিবেদনে আসল ছবিটি দেখতে পাওয়া। মূল ছবিতে কারাগারের একজন যুবতী বসে রয়েছেন, সুচি নন। কিন্তু এই প্রতিবেদনে ছবিটি কোথাকার বা ছবিতে যাকে দেখা যাচ্ছে তিনি কে, ইত্যাদি সম্বন্ধে কোনও তথ্য দেওয়া নেই। 

download (68).png
প্রতিবেদনআর্কাইভ

আরও বেশ কিছু পুরনো প্রতিবেদনে এই ছবিটি দেখতে পাওয়া যায়। এই সমস্ত থেকে সূত্র নিয়ে প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চ করে স্টক ছবির ওয়েবসাইট ‘ইউকিপিডিয়া কমনস’ থেকে জানতে পারি ছবিটি আসলে ২০১৩ সালের। ছবির শিরোনামে লেখা রয়েছে “মহিলা কয়েদী তার ছোট কারাগারে আবদ্ধ।“

download (69).png

নিচে মূল ছবি এবং সম্পাদিত ভাইরাল ছবির একটি তুলনা দেওয়া হল যা দেখে স্পষ্ট হয়ে যায় এই ছবিকেই সম্পাদিত করে গুজব ছড়ানো হচ্ছে। 

Comparison.png

গত ফেব্রুয়ারি মাসে মিয়ানমারের অং সান সু চিকে গ্রেফতার করে ওই দেশের সেনাবাহিনী। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমের সূত্র অনুযায়ী তিনি এখনও কারাগারেই রয়েছেন এবং বন্দী থাকা অবস্থায় তার কোনও ছবি প্রকাশ করা হয়নি। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল। ২০১৩ সালের একটি ছবিকে সম্পাদিত করে ‘অং সান সু চি’-র মুখ বসিয়ে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে।

Avatar

Title:কারাগারে বন্দী অবস্থায় থাকা ‘অং সান সু চি’র ভাইরাল ছবিটি আসলে সম্পাদিত

Fact Check By: Rahul A 

Result: Altered

Leave a Reply

Your email address will not be published.