২০১৫ সালের সিরিয়ার ভিডিওকে আফগানিস্তানের ঘটনা দাবি করে ভুয়া পোস্ট শেয়ার করা হচ্ছে

False International

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, কাবুল দখল করার পর শুকরান নামাজ পড়ছে তালিবানিরা। চার মিনিটের এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে অনেকগুলি লোক বন্দুক হাতে মাটিতে সেজদা করছে এবং বলতে শোনা যাচ্ছে ‘আল্লাহ-হু-আকবর’। এরপর দেখা যাচ্ছে তারা একটি পতাকা মাটিতে নামিয়ে পোড়াচ্ছে। অস্ত্র হাতে কিছু লোক উন্মাদের মতো উল্লাস করছে এবং চারিদিক থেকে প্রচুর গুলির শব্দ ভেসে আসছে। পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “কাবুল বিজয়ের পর তালেবানদের শুকরান নামাজ। আলহামদুলিল্লাহ। এটা শুধু তালেবানদের জয় নয় বিশ্বের মুসলমান জাতির বিজয়।“  

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি কাবুল দখল করেছে সন্ত্রাসী সংগঠন তালিবান। আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি আশরাফ ঘানি ইতিমধ্যেই দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন। সাধারণ মানুষ দেশ ছেড়ে পালিয়ে যেতে বিমান বন্দরে ভিড় জমাচ্ছে। সম্পূর্ণ বিশ্বেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাড়িয়েছে আফগানিস্তান এবং ওই দেশের বাসিন্দাদের ভবিষ্যৎ। তালিবান জানিয়েছেন তারা দেশে শারিয়া আইন লাগু করলেও এবার তা আধুনিক হবে।

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি ভিত্তিহীন এবং বিভ্রান্তিকর। ২০১৫ সালের জঙ্গি সংগঠন ‘আইসিস’-এর সিরিয়ার ইদলিব শহর দখল করার ভিডিওকে তালিবানের কাবুল দখল করার পরের ঘটনা দাবি করে ভুয়া ভিডিও ভাইরাল করা হচ্ছে। 

ফেসবুক পোস্টফেসবুক পোস্টফেসবুক পোস্ট

 তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে ভিডিওকে ‘ইনভিড-উই-ভেরিফাই’ টুলে কয়েকটি ফ্রেমে ভাগ করে রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলাফলা, দুটি ভিন্ন সূত্র থেকে ভিডিওর প্রথম ভাগ এবং দ্বিতীয় ভাগের অনুসন্ধান খুঁজে পাওয়া যায়। বিটিশ সংবাদ মাধ্যম ‘ডেইলি মেল’-এর ২০১৫ সালের ২ এপ্রিলের একটি প্রতিবেদন প্রথম ভাগ দেখতে পাই যেখানে বন্দুকধারীরা সেজদা করছে। আর্কাইভ করা এই ভিডিওর শিরোনামে লেখা রয়েছে “সিরিয়ান শহর ইদলিব দখল করার পর উদযাপন করছে আইসিস (ISIS)।“

download - 2021-08-18T132619.247.png
প্রতিবেদনআর্কাইভ

নিচে ‘ডেইলি মেল’-এর ভিডিওটি দেওয়া হল। 

ভিডিওর বাকি অংশ, যেখানে একটি পতাকাকে মাটিতে ফেল পোড়ানো হচ্ছে, ২০১৯ সালের একটি ইউটিউব ভিডিওতে দেখতে পাই। ‘ওরিয়েন্ট টিভি’ নামে একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে আপলোড করা এই ভিডিওর ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “ইদলিবের স্বাধীনতা, সিরিয়ান বিপ্লবের ইতিহাসের কিছু অবিস্মরণীয় মুহূর্ত।“

সিরিয়ান শহর ইদলিব এক দশকের বেশি সময় ধরে গৃহযুদ্ধের মধ্যে রয়েছে। এরপর সংবাদ মাধ্যম ‘আল জাজিরা’-এর একটি একটি প্রতিবেদন থেকে জানতে পারি, ছয় বছর আগে ২০১৫ সালে সন্ত্রাসী সংগঠন আইসিস সিরিয়ার ইদলিব শহর দখল করে। এর থেকে স্পষ্ট হয়ে যায় ভাইরাল ভিডিওটি ২০১৫ সালের, সম্প্রতির নয়। 

image1.png
প্রতিবেদনআর্কাইভ

ভিডিওতে যে ভাষায় কথা বলা হচ্ছে তা হল আরবি, আফগানিস্তানের ভাষা পাস্তো বা দারি নয়। আমরা আরও দেখতে পাই ভাইরাল ভিডিওতে যে পতাকাটিকে দেখা যাচ্ছে সেটি আসলে সিরিয়ার পতাকা। নিচে ভাইরাল ভিডিওর পতাকা এবং সিরিয়ার জাতীয় পতাকার একটি তুলনামূলক ছবি নিচে দেওয়া হল। 

image2.png

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল। ২০১৫ সালের জঙ্গি সংগঠন ‘আইসিস’-এর সিরিয়ার ইদলিব শহর দখল করার ভিডিওকে তালিবানের কাবুল দখল করার পরের ঘটনা দাবি করে ভুয়া ভিডিও ভাইরাল করা হচ্ছে। 

Avatar

Title:২০১৫ সালের সিরিয়ার ভিডিওকে আফগানিস্তানের ঘটনা দাবি করে ভুয়া পোস্ট শেয়ার করা হচ্ছে

Fact Check By: Rahul A 

Result: False

Leave a Reply

Your email address will not be published.