২০০১ সালে কাবুলে তালিবানের অত্যাচারের ছবিকে সম্প্রতি দৃশ্য বলে ভুয়া দাবি করা হচ্ছে

International Missing Context

কাবুল দখলের সাথে সাথে আফগানিস্তান বর্তমানে সন্ত্রাসী সংগঠন তালিবানের হাতে। সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে সংবাদপত্র, সমস্ত যায়গাতেই আলোচনার মূল বিষয়বস্তু হয়ে দাড়িয়েছে তালিবানের এই দখল। স্বাভাবিক ভাবেই এই ঘটনা নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচুর পুরনো ছবি এবং ভিডিও শেয়ার করে ভুয়ো খবরও ছড়ানো হচ্ছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্ট শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, আফগানিস্তানে মহিলাদের ওপর অত্যাচার করছে তালিবানিরা। পোস্টের ছবিতে দেখা যাচ্ছে বেশ কয়েকজন মহিলা বোরখা পরে দাড়িয়ে আছে একজন লোক হাতে একটি লাঠি জাতীয় জিনিস নিয়ে তাদের মারছে। ছবির ওপরে লেখা রয়েছে, “তালিবানি আতঙ্কে কাবুলের রাস্তা প্রায় মহিলাশূন্য, ক্রমে বিক্রি বাড়ছে বোরখার।“

পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “কাবুল দখল নেওয়ার পরেই আফগানিস্তান জুড়ে শুরু হয়ে গিয়েছে তালিবান-তাণ্ডব। দোকান, ব্যাঙ্ক থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে মহিলাদের। রাস্তায় প্রাণে বাঁচতে ঊর্ধ্বশ্বাসে ছুটছেন সবাই। শরীর ঢাকতে এক দিনে হঠাৎ করে বিক্রি বেড়ে গিয়েছে বোরখার।“ 

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি বিভ্রান্তিকর এবং ভিত্তিহীন। ২০০১ সালে কাবুলে মহিলাদের ওপর তালিবানের অত্যাচারের একটি ছবিকে সম্প্রতির ঘটনা দাবি করে ভুয়া পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে। 

Claim Taliban.png
ফেসবুক পোস্টআর্কাইভ

প্রসঙ্গত, আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি আশরাফ ঘানি ইতিমধ্যেই দেশ ছেড়ে পালিয়েছেন। সাধারণ মানুষ দেশ ছেড়ে পালিয়ে যেতে বিমান বন্দরে ভিড় জমাচ্ছে। সম্পূর্ণ বিশ্বেই আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু হয়ে দাড়িয়েছে আফগানিস্তান এবং ওই দেশের বাসিন্দাদের ভবিষ্যৎ। তালিবান জানিয়েছেন তারা দেশে শারিয়া আইন লাগু করলেও এবার তা আধুনিক হবে।

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে ছবিটিকে গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলাফলে, মহিলাদের প্রতি তালিবানের আচরণ নিয়ে লেখা উইকিপিডিয়ার একটি প্রতিবেদনে এই ছবিকে দেখতে পাওয়া। ছবির ক্যাপশনে লেখা রয়েছে, “২০০১ সালের ২৬ অগস্ট তালিবানের একজন ধর্মীয় নীতি পুলিশ কর্মী আফগান মহিলাকে মারছে।“ ছবিটি সংগ্রহ করেছে ‘রেভোলিউশনারী অ্যাসোসিয়েশন অফ দ্য উমেন অফ আফগানিস্তান (RAWA)’। 

download - 2021-08-19T134307.460.png
উইকিপিডিয়াআর্কাইভ

উইকিপিডিয়া থেকেই RAWA-এর ওয়েবসাইটে থাকা এই ছবিগুলির লিঙ্ক খুঁজে পাই। সেখানে ভাইরাল এই ছবির সাথে এই ঘটনার আরও বেশ কয়েকটি দৃশ্য দেখতে পাওয়া যায়। এই গ্যালারির শিরোনামে লেখা রয়েছে, “এই ছবিগুলি ২০০১ সালের ২৬ অগস্ট কাবুলে RAWA-এর দ্বারা গোপন ক্যামেরায় তোলা একটি ভিডিও থেকে সংগ্রহ করা হয়েছে। এখানে দেখা যাচ্ছে আমরো বিল মাহরুফ (প্রমোশন অফ ভার্চু অ্যান্ড প্রিভেনশন অব ভাইস, তালিবান ধর্মীয় নীতি পুলিশ) একজন মহিলাকে মারছে কারণ সে লোকালয়ে নিজের বোরখা খোলার সাহস করে।“

download - 2021-08-19T135020.203.png
RAWA গ্যালারিআর্কাইভ

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল। ভিত্তিহীন। ২০০১ সালে কাবুলে মহিলাদের ওপর তালিবানের অত্যাচারের একটি ছবিকে সম্প্রতির ঘটনা দাবি করে ভুয়া পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে।

Avatar

Title:২০০১ সালে কাবুলে তালিবানের অত্যাচারের ছবিকে সম্প্রতি দৃশ্য বলে ভুয়া দাবি করা হচ্ছে

Fact Check By: Rahul A 

Result: Missing Context

Leave a Reply

Your email address will not be published.