ভারতের পুরনো ঘটনাকে বিভ্রান্তিকর শিরোনামের সাথে শেয়ার করা হচ্ছে

Missing Context Social

বাংলাদেশে প্রায়ই দেখা যায় কিছু নিউজ পোর্টাল ভিউজ পাওয়ার উদ্দেশ্য ক্লিকবেট জাতীয় অর্ধসত্য প্রতিবেদন প্রকাশ করে। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এরকমই একটি প্রতিবেদনকে খুব ভাইরাল করা হচ্ছে, প্রতিবেদনের শিরোনামে লেখা রয়েছে, “শ্বশুরের সাথে রাত কাটাতে বা’ধ্য হয় শাহবিনা”। পোস্টটি ৩০ ডিসেম্বর শেয়ার করা হয়েছে। 

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি বিভ্রান্তিকর শিরোনামে ব্যাবহার করা ভুয়ো খবর ছড়ানো হচ্ছে। এটি ২০১৮ সালের ভারতের উত্তরপ্রদেশের ঘটনা। 

Shahbina.png
ফেসবুক আর্কাইভ 

তথ্য যাচাই 

গুগলে রিভার্স ইমেজ সার্চ করে ‘ইন্ডিয়া ডট কম’ নামে একটি ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে ছবিটিকে দেখতে পাই। ২০১৮ সালের ১৮ জুলাইয়ের এই প্রতিবেদন অনুযায়ী, ‘উত্তরপ্রদেশে তিন তালাকের মাধ্যমে বিবাহ বিচ্ছিন্না এক মহিলার সঙ্গে  মেলামেশার উপর ফতোয়া জারি করা হয়। নির্দেশ দেওয়া হল নিদা খান নামে ওই মহিলার সঙ্গে কেউ যেন কথা না বলে। তিনি যদি অসুস্থ হয়ে পড়েন তাহলে তাঁকে দেওয়া যাবে না ওষুধটুকুও।‘

অর্থাৎ, স্পষ্ট হয়ে যায় ছবির মহিলাটির নাম নিদা খান, শাহবিনা নয়। 

India.png
প্রতিবেদন আর্কাইভ 

এরপর আরও কিওয়ার্ড সার্চ করে সংবাদমাধ্যম ‘বিবিসি বাংলা’র ২০১৮ সালের একটি প্রতিবেদনে এই খবরটি দেখতে পাই। সেখানেও একই কথা লেখা রয়েছে। আরও জানতে পারি, এই প্রতিবেদনকেই হুবহু টুকে বিভ্রান্তিকর শিরোনামের সাথে খবরটিকে শেয়ার করা হচ্ছে। 

nida khan.png
প্রতিবেদন আর্কাইভ 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি বিভ্রান্তিকর। ২০১৮ সালের ভারতের একটি ঘটনাকে ভুয়ো শিরোনামের সাথে শেয়ার করা হচ্ছে। 

Avatar

Title:ভারতের পুরনো ঘটনাকে বিভ্রান্তিকর শিরোনামের সাথে শেয়ার করা হচ্ছে

Fact Check By: Rahul A 

Result: Missing Context

Leave a Reply

Your email address will not be published.