দুটি ভিন্ন ছবিকে সম্পাদিত করে বঙ্গবন্ধু টানেল দাবিতে ভুয়া পোস্ট শেয়ার

Altered Political

সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি ছবি শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, কর্ণফুলী নদীর নিচে তৈরি হল এশিয়ার সর্বপ্রথম টানেল। ছবিতে দেখা যাচ্ছে একটি নদীর নিচে দুটি টানেলের ছবি রয়েছে। দুটি টানেল দিয়েই গাড়ি যাচ্ছে এবং নদীতে অনেকগুলি জাহাজ  রয়েছে। পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছে – বঙ্গবন্ধু টানেল✌️ কর্ণফুলী নদীর তলদেশ দিয়ে স্থাপিত দক্ষিণ এশিয়ার সর্বপ্রথম  টানেল_ জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু 🇧🇩। 

তথ্য যাচাই করে আমরা দেখতে পেয়েছি এই দাবি বিভ্রান্তিকর এবং ভিত্তিহীন। দুটি ভিন্ন ছবিকে সম্পাদিত করে বঙ্গবন্ধু টানেল দাবিতে শেয়ার করা হচ্ছে। 

ফেসবুক পোস্টআর্কাইভ

তথ্য যাচাই

এই দাবির সত্যতা যাচাই করতে প্রথমে রিভার্স ইমেজ সার্চ করি। ফলাফলে, structurae.net নামে একটি ওয়েবসাইটে এর অনুসন্ধান পাই। জানতে পারি দুটি ভিন্ন ভিন্ন ছবিকে সম্পাদিত করে ভাইরাল ছবিটি তৈরি করা হয়েছে। প্রথম ছবিটি জার্মানির লিওনবার্গ শহরের একটি টানেলের ছবি। এই টানেলের নাম ‘Engelberg Base Tunnel’। ছবিটি দেখুন এখানে। 

এরপর আরও কয়েকবার রিভার্স ইমেজ সার্চ করে জানতে পারি এটি চিটাগং শহরের কর্ণফুলী নদীর ছবি। ‘ট্রিপ অ্যাডভাইজার’ নামের একটি ওয়েবসাইটে কর্ণফুলী নদী নিয়ে বানানো একটি অ্যালবামে এই ছবি দেখতে পাই। 

নীচে ছবি গুলোর তুলনা দেওয়া হলঃ 

অপরপক্ষে, কর্ণফুলী নদীর তলদেশে বন্দর নগরী চট্টগ্রামে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান টানেলের নির্মাণের কাজ চলছে। 

 উপরোক্ত সমস্ত তথ্য এবং প্রমাণ থেকে স্পষ্ট হয়ে যায় জার্মানির একটি টানেলের ছবি এবং কর্ণফুলী নদীর ছবিকে সম্পাদিত করে একসাথে জুড়ে সেটিকে বাংলাদেশে তৈরি হওয়া এশিয়ার প্রথম টানেল বলে দাবি করে ভুয়ো পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে। এই টানেলের সাথে কর্ণফুলী নদী বা বাংলাদেশের কোনও সম্পর্ক নেই।

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। দুটি ভিন্ন ছবিকে সম্পাদিত করে বঙ্গবন্ধু টানেল দাবিতে শেয়ার করা হচ্ছে।

Avatar

Title:দুটি ভিন্ন ছবিকে সম্পাদিত করে বঙ্গবন্ধু টানেল দাবিতে ভুয়া পোস্ট শেয়ার

Fact Check By: Rahul A 

Result: Altered

Leave a Reply

Your email address will not be published.