ভারতীয় হিজাব বিতর্কঃ আত্মীয়ের সাথে মুসকানের তোলা ছবিকে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে ভাইরাল

International Missing Context

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুকে একটি ছবি শেয়ার করে দাবি করা হচ্ছে, ভারতের হিজাব-বিতর্কের মুখ মুসকান তার বাবার সাথে দাড়িয়ে রয়েছে। পোস্টের ছবিতে দেখা যাচ্ছে বোরখা পরিহিত একটি মেয়ের পাশে দাড়িয়ে রয়েছে একজন বয়স্ক ব্যক্তি। পোস্টের ক্যাপশনে লেখা রয়েছেঃ বাবার সাথে সাহসী মেয়ে মুসকান ❤ মাশাআল্লাহ! বাপের বেটি 🌸🥀।“  

তথ্য যাচাই করে আমরা জানতে পারি পোস্টের দাবি ভুয়ো ও বিভ্রান্তিকর। দূর সম্পর্কের এক আত্মীয়ের সাথে হিজাব-বিতর্কের মুখ মুসকানের তোলা ছবিকে ভুয়া দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে।      

ফেসবুক পোস্টআর্কাইভ 

উল্লেখ্য, সম্প্রতি পার্শ্ববর্তী দেশ ভারতের কর্ণাটকে উদুপির একটি সরকারি প্রি-ইউনিভার্সিটি কলেজে শ্রেণীকক্ষে হিজাব পরে আসা ছাত্রীদের কলেজ চত্বরের বাইরে চলে যেতে বলা হয়। এই ঘটনার পরেই দেশজুড়ে শুরু হয় হিজাব-বিতর্ক। দক্ষিণপন্থী সংগঠনগুলি হিজাব পরে ছাত্রীদের ক্লাসে আসার বিরোধিতা করতে শুরু করে। কর্ণাটকের ম্যান্ডার পিইএস কলেজে একজন ছাত্রী কলেজে আসার পথ তাকে হেনস্থা করতে শুরু করে দক্ষিণপন্থী ছাত্রের একটি দল। মেয়েটিকে দেখে তারা ‘জয় শ্রী রাম, জয় শ্রী রাম’ চিৎকার করতে থাকে। উত্তরে মেয়েটি ‘আল্লাহু আকবর’ স্লোগান তোলে। এই ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়ার পর হিজাব-বিতর্কের মুখ হয়ে যায় মুসকান হিজাব পরিহিত এই কলেজ ছাত্রী। বিস্তারিত…।

ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো বাংলাদেশ এর আগে হিজাব-বিতর্ক নিয়ে ছড়ানো একটি ভুয়ো খবরের তথ্য যাচাই করে সেটিকে ভুয়া প্রমাণ করেছে। ফ্যাক্ট চেকটি পড়ুন এখানে। 

তথ্য যাচাই 

এই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করতে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সরাসরি মুসকানের বাবা মোহাম্মাদ হুসেইন খানের সাথে যোগাযোগ করে। তাকে ভাইরাল ছবি দেখাতে তিনি পোস্টের দাবি খণ্ডন করে বলেন, “আমার মেয়ে মুসকানের পাশে দাড়িয়ে থাকা বয়স্ক লোকটি আমাদের পরিবারের দূরসম্পর্কের একজন আত্মীয়। মুসকানের সাহসিকতার ভাইরাল ভিডিও দেখার পর তিনি কেরালা থেকে মুসকানের সাথে দেখা করতে আসেন। সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল দাবি ভিত্তিহীন।” 

দূর সম্পর্কের আত্মীয়ের সাথে সেদিনের সাক্ষাৎকারের একটি ছবি তিনি আমাদের সাথে শেয়ার করেন। এই ছবিতে মোট ৫ জন দাড়িয়ে রয়েছে যার মধ্যে মুসকানের ডান পাশে দাড়িয়ে থাকা ব্যক্তিটি হলেন মুসকানের বাবা। ভাইরাল ছবির ব্যক্তি সহ বাকি তিন জনই তাদের আত্মীয়।  

এছাড়া শুধুমাত্র বাবার সাথে মেয়ের একটি ছবিও তিনি ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডোকে পাঠান।  

প্রাসঙ্গিক কিওয়ার্ড সার্চের মাধ্যমে সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া মুসকানের একটি সাক্ষাৎকারের ভিডিও খুঁজে পাই। এই ভিডিওর ৭ মিনিট ১২ সেকেন্ডের মাথায় মুসকানের বাবা মোহাম্মাদ হুসেইন খানকে দেখতে পাওয়া যায়।

উপরোক্ত সমস্ত প্রমাণ থেকে স্পষ্ট হয়ে যায় আত্মীয়ের সাথে তোলা মুসকানের একটি ছবিকে তার বাবা দাবি করে বিভ্রান্তিকর পোস্ট ভাইরাল করা হচ্ছে। 

নিষ্কর্ষঃ তথ্য যাচাই করে ফ্যাক্ট ক্রিসেন্ডো সিদ্ধান্তে এসেছে উপরোক্ত দাবিটি ভুল ও ভিত্তিহীন। দূর সম্পর্কের এক আত্মীয়ের সাথে হিজাব-বিতর্কের মুখ মুসকানের তোলা ছবিকে ভুয়ো দাবির সাথে ভাইরাল করা হচ্ছে।

Avatar

Title:ভারতীয় হিজাব বিতর্কঃ আত্মীয়ের সাথে মুসকানের তোলা ছবিকে বিভ্রান্তিকর দাবির সাথে ভাইরাল

Fact Check By: Rahul A 

Result: Missing Context

Leave a Reply

Your email address will not be published.